প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগে ২ টি বড় পরিবর্তন, টেট পাশেদের মধ্যে প্রতিযোগিতা বাড়ল

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ার ইন্টারভিউ পর্ব শুরু হয়েছে। প্রথম পর্বের ইন্টারভিউ হয়েও গেছে। এরমধ্যে‌ই নিয়োগ প্রক্রিয়ায় বড় বদল আসতে চলেছে। ফলে নতুন করে অনেকে যেমন আবেদন জানাতে পারবেন, তেমনই চাকরিপ্রার্থীদের মধ্যে প্রতিযোগিতা আর‌ও বাড়বে।

প্রাথমিকের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় এই পরিবর্তন কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে হচ্ছে। মূলত দুটো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বদলে যাওয়ায় নতুন করে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ (WBBPE)। ঘটনা হল এই প্রথম নয়, সেপ্টেম্বর মাসের শেষের দিকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জারির পর থেকেই বারবার নিয়োগ নির্দেশিকা পরিবর্তন করেছে পর্ষদ।

এর ফলে চাকরিপ্রার্থীদের মধ্যে হতাশা বেড়েছে। ক্রমশ প্রতিযোগিতা বৃদ্ধির বিষয়টা অনেকে মেনে নিতে পারছেন না। এদিকে আইন ও অধিকারের কথা মাথায় রেখে আদালত‌ও কঠোর অবস্থান নিতে বাধ্য হচ্ছে। 

2 major changes in recruitment of primary teachers

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগে ২ টি কী পরিবর্তন হল?

রাজ্যে প্রায় সাড়ে এগারো হাজার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সেই নিয়োগে কারা আবেদন করতে পারবে তা নিয়ে সম্প্রতি গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। সেই নির্দেশিকা মেনে বিজ্ঞপ্তি জারি করে আবেদনকারীদের বিষয়ে দুটো গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন এনেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

(১) CTET পাসরাও শিক্ষক পদে আবেদন জানাতে পারবেন। প্রতি রাজ্যে যেমন টেট পরীক্ষা হয়, তেমনই কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক টেট পরীক্ষা নেয়। যার নাম – Central Teachers’ Eligibility Test. টেট চালু হ‌ওয়ার সময়‌ই শোনা গিয়েছিল CTET উত্তীর্ণরা রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগে আবেদন করতে পারবেন। কিন্তু প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ তাদের বিজ্ঞপ্তিতে CTET পাসদের কথা উল্লেখ‌ই করেনি।

তাই তারা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে‌ই আদালত নির্দেশ দেয়, CTET উত্তীর্ণদের‌ নতুন করে আবেদন করতে দিতে হবে এবং ইন্টারভিউয়ে বসার সুযোগ দিতে হবে। সেই মতো বিজ্ঞপ্তি দিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ জানিয়েছে, CTET উত্তীর্ণরাও এবার চলতি নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আবেদন জানাতে পারবেন।

(২) রাজ্যের টেট উত্তীর্ণদের মধ্যে যাদের বয়স ৪০ (চল্লিশ) বছর পেরিয়ে গিয়েছে, তারাও নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে দেওয়ার দাবি জানিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত কলকাতা হাইকোর্ট সেই দাবি আংশিক মেনে নিয়েছে। জানিয়েছে, ২০১৭ এর টেট উত্তীর্ণদের মধ্যে যাদের বয়স ৪০ বছর পেরিয়ে গিয়েছে তারাও নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারবেন। সেই অনুযায়ী নির্দেশিকা জারি করে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ জানিয়েছে, ২০১৭ এর টেট উত্তীর্ণ ৪০ উর্দ্ধরাও এবার নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারবেন। তাঁদের জন্য আদালতের নির্দেশ মতো আলাদা করে ইন্টারভিউ হবে।

তবে ২০১৪ এর টেট উত্তীর্ণদের মধ্যে যাদের বয়স ৪০ বছর পেরিয়ে গিয়েছে তাঁদের এই সুযোগ দেওয়া হয়নি। ফলে বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। এক্ষেত্রে শিক্ষা মহলের যুক্তি, ২০১৭ এর টেট উত্তীর্ণরা এই প্রথম ইন্টারভিউয়ে বসার সুযোগ পাচ্ছেন। তাই তাঁদের ক্ষেত্রে এই ব্যতিক্রমী নির্দেশ দিয়ে থাকতে পারে আদালত। উল্লেখ্য, সাধারণ নিয়ম হল, সাধারণ শ্রেণির চাকরিপ্রার্থীরা সর্বোচ্চ ৪০ বছর বয়স পর্যন্ত প্রাথমিক শিক্ষক পদের চাকরির জন্য আবেদন জানাতে পারবেন।

বিঃদ্র: নতুন কোনো চাকরি ও কাজের আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হয়ে যান। নিচে যুক্ত (Join) হওয়ার লিংক দেওয়া রয়েছে ঐ লিংকে ক্লিক করলেই যুক্ত হয়ে যেতে পারবেন। ওখানেই সর্বপ্রথম আপডেট দেওয়া হয়। আর আপনি যদি অলরেডি যুক্ত হয়ে থাকেন এটি প্লিজ Ignore করুন।  

Important Links:  👇👇
কাজকর্ম WhatsApp গ্রুপে জয়েন হোনClick Here
✅ Telegram ChannelJoin Now

🔥 আরো চাকরির আপডেট 👇👇

🎯 প্রাইমারি ইন্টারভিউয়ে নম্বরের কারচুপি রুখতে নতুন নিয়ম

🎯 5 টি রাজ্যে বন্ধ হল স্কুল! তবে করোনার কারনে নয়

🎯 মাধ্যমিক পাশে রাজ্যে রেলের IRCTC-তে চাকরি