রাজ্যের 30 হাজার ছেলে-মেয়েকে চাকরির নিয়োগপত্র: 3-4 দিনের মধ্যে, চাকরির বড় ঘোষণা মমতার

শুধু সরকারি চাকরি না, বর্তমানে কেরিয়ার গড়তে বেসরকারি ক্ষেত্রের‌ও বড় ভূমিকা আছে। আর সেখানে কাজ পাওয়ার উপযোগী করে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। রাজ্যের ছেলেমেয়েদের সঠিকভাবে প্রশিক্ষণ দিয়ে তাদের বেসরকারি ক্ষেত্রে বড় বড় কাজ পাওয়ার যোগ্য করে তুলতে রাজ্যের কারিগরি শিক্ষা দফতর।

তাদের হাত ধরেই বাংলার ৩০ হাজারের বেশি ছেলে-মেয়ে আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থায় চাকরির নিয়োগপত্র হাতে পেয়ে যাবে। এই সবটাই হচ্ছে রাজ্য সরকারের উৎকর্ষ বাংলা প্রকল্পের অধীনে। সোমবার নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে রং অনুষ্ঠান থেকে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গোটা বিষয়টি ঘোষণা করেন।

30000 Appointment Letter To Job Seeker 3-4 days

ঠিক কী হতে চলেছে?

রাজ্য কারিগরি শিক্ষা দফতর তাদের পরিচালিত আইটি ও আইটিআইগুলির মাধ্যমে ছেলেমেয়েদের কারিগরি ক্ষেত্রের বিভিন্ন ট্রেডের প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। মোটর মেকানিক, ফিটার, প্লাম্বিং থেকে শুরু করে গার্ডেনিং, লেদার মেকানিক এমনকি রান্না করা, অর্থাৎ শেফের কাজের প্রশিক্ষণ সহ বহু বিষয়ে একেবারে বাজার চাহিদা মতো পেশাদার ঘরে তোলে রাজ্য‌।

এই প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা যাতে সহজে চাকরি পান সেই বিষয়টিও দেখে রাজ্য সরকার। তারাই বিভিন্ন বড় বড় কোম্পানির সঙ্গে কথা বলে প্লেসমেন্টের ব্যবস্থা করে। সেই প্লেসমেন্টের মাধ্যমে চলতি বছরে এখনও পর্যন্ত রাজ্যের ৩০,৭৬২ জন চাকরি পেয়েছেন। তাঁদের মধ্যে দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলা মিলিয়ে চাকরি পাওয়া প্রায় ১১ হাজার ছেলে-মেয়েকে নিয়ে সোমবার নেতাজি ইনডোরের অনুষ্ঠানটি হয়।

সেখানেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, অনুষ্ঠানে আগতরা বাড়ি ফেরার সময়‌ই চাকরির অ্যাপয়েন্টমেন্ট লেটার অর্থাৎ নিয়োগপত্র হাতে পেয়ে যাবেন। সেই হিসেবে ১১ হাজার জনের‌ই সোমবার নিয়োগপত্র পেয়ে যাওয়ার কথা। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন চাকরি পাওয়া বাকিদের‌ও আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে নিয়োগপত্র পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

এছাড়াও খড়্গপুর, শিলিগুড়ি সহ রাজ্যের তিন জায়গায় এই চাকরি পাওয়া ছেলে-মেয়েদের ডেকে এক‌ইরকমভাবে শুভেচ্ছা জানাবেন বলেও জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

যারা চাকরি পেল না তাদের কী হবে?

নেতাজি ইনডোর থেকেই মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন কারিগরি শিক্ষা দফতরের যে সফল প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা আগের প্লেসমেন্ট ইন্টারভিউয়ে যোগ দেননি তাঁদের জন্য আবার প্লেসমেন্টের ব্যবস্থা করা হবে। এছাড়াও অতীতের যারা চাকরি পাননি তাঁরাও প্লেসমেন্টের সুবিধা পাবেন বলে মুখ্যমন্ত্রী জানান।

কোন জেলায় কতজন চাকরি পেলেন?

(1) দার্জিলিং ৭৮৪

(2) কালিম্পঙ ১৩

(3) কোচবিহার ৯১৭

(4) আলিপুরদুয়ার ২৬৮

(5) জলপাইগুড়ি ৭৯৮

(6) উত্তর দিনাজপুর ৫০৮

(7) দক্ষিণ দিনাজপুর ৫৫১

(8) মালদহ ৭২৭

(9) মুর্শিদাবাদ ১৯৮৮

(10) বাঁকুড়া ১৮৩৮

(11) পুরুলিয়া ১৯১৯

(12) বীরভূম ৯৭৯

(13) পূর্ব বর্ধমান ৮৮০

(14) পশ্চিম বর্ধমান ৩৫০০

(15) পশ্চিম মেদিনীপুর ১৭০৭

(16) পূর্ব মেদিনীপুর ১৩১৯

(17) ঝাড়গ্রাম ৪৯৫

(18) কলকাতা ২৪৮৪

(19) উত্তর ২৪ পরগনা ২৫৯৪

(20) দক্ষিণ ২৪ পরগনা ২৪৭৭

(21) হাওড়া ১১৪১

(22) হুগলি ১৪০৫

(23) নদিয়া ১৪৬৭

ওই অনুষ্ঠানেই মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন কারিগরি শিক্ষায় প্রশিক্ষণ প্রাপ্তদের মধ্যে দেশের সেরা ২১ জনের মধ্যে বাংলারই ৯ জন ছেলে-মেয়ে আছে। যা এই ক্ষেত্রে বাংলার উৎকর্ষতারই প্রমাণ দিচ্ছে।

👍 চাকরি ও কাজের আপডেট মিস না করতে চাইলে আমাদের ‘টেলিগ্রাম চ্যানেলে’ যুক্ত হয়ে যান

🔥 আরো আপডেট 👇👇