রাজ্যের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ৭ দফা নির্দেশিকা জারি, ২০২৩ থেকে শুরু হচ্ছে এই নিয়ম!

ছাত্রছাত্রীদের জন্য একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। গোটাটাই পড়ুয়াদের সুস্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার কথা ভেবে করা হয়েছে। এর ফলে পশ্চিমবঙ্গে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের অন্তর্গত স্কুলগুলিকে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে ৭ দফা এই নতুন নিয়ম মেনে চলতে হবে। সেই সঙ্গে প্রতিটি স্কুলে গঠিত হবে একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি। যে কমিটির তত্ত্বাবধানে এই নতুন সাত দফা নিয়ম স্কুলগুলিতে বলবত করা হবে। গোটা বিষয়টি বাস্তবায়িত করতে বদ্ধপরিকর মধ্য শিক্ষা পর্ষদ।

মধ্যশিক্ষা পর্ষদ যে ৭ দফা নির্দেশিকা জারি করেছে তা ইতিমধ্যেই তাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা রাজ্যের প্রতিটি মাধ্যমিক স্কুলে পৌঁছে গিয়েছে। আগামী শিক্ষাবর্ষ অর্থাৎ ২০২৩ সালের শুরু থেকেই পঞ্চম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ছেলেমেয়েদের জন্য এই নিয়ম চালু হবে। তবে উচ্চমাধ্যমিক স্কুলগুলিতে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীরাও এই নিয়মে অন্তর্গত হবেন বলে জানা গিয়েছে।

7 point guidelines issued for the students of the state

ছাত্রছাত্রীদের জন্য ৭ দফা বিধি

1/5: ছাত্র-ছাত্রীদের নিরাপত্তা এবং সুস্থ শরীরের কথা ভেবে মোট সাত দফা বিধি জারি করেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, তাদের জারি করা এই নির্দেশিকা যাতে সারা বছর সঠিকভাবে মেনে চলা হয় তা নিশ্চিত করার জন্য প্রতিটি স্কুলে উচ্চপর্যায়ের কমিটির গঠন বৈশিষ্ট্য।

2/5: পর্ষদ নির্দেশ দিয়েছে- প্রত্যেক স্কুলের প্রধান শিক্ষক বা টিচার ইনচার্জ এই কমিটির মাথায় থাকবেন। সেইসঙ্গে স্কুলের একজন মহিলা শিক্ষককে এই কমিটির সদস্য করতে হবে। যদি কোন‌ও স্কুলে মহিলা শিক্ষক না থাকেন তবে কোন‌ও উপযুক্ত পুরুষ শিক্ষককে সেই দায়িত্ব দিয়ে কমিটির সদস্য করা হবে। 

3/5: এছাড়া স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি, অভিভাবকদের দু’জন প্রতিনিধি, স্থানীয় থানার একজন আধিকারিক ও পরিবার-সমাজকল্যাণ দফতরের সদস্যাদের রাখতে হবে এই কমিটিতে। মোট ৭ সদস্যের কমিটি হবে। এই কমিটি স্কুলের পরিস্কার-পরিচ্ছন্নের বিষয়টি নিশ্চিত করবে। ম্যালেরিয়া-ডেঙ্গুর মতো পতঙ্গ বাহিত রোগ যাতে না হয় দেখবে। সেইমতো ব্যবস্থা নেবেন তাঁরা।

4/5: এছাড়া স্কুলের পড়ুয়াদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সিসি ক্যামেরার বন্দোবস্ত করা, ইলেকট্রিক কানেকশন থেকে কোন‌ও বিপদ যাতে না ঘটে সেটাও নিশ্চিত করা এই কমিটির কাজ। এর জন্য লাইসেন্সধারী ইলেকট্রিসিয়ানকে দিয়ে প্রতি ৬ মাস অন্তর স্কুলের বিদ্যুতের কানেকশন, ফ্যান-লাইট পরীক্ষা করাটাও এই কমিটির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ হিসেবে গন্য হবে।

5/5: শিক্ষক ও পড়ুয়াদের নিরাপদ পানীয় জলের ব্যবস্থা করা, বাথরুম ঠিকঠাক রাখাটাও এই কমিটিকেই নিশ্চিত করতে হবে বলে জানিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। এরজন্য নির্দিষ্ট সময় অন্তর কারিগরি জনস্বাস্থ্য বিভাগের ল্যাব থেকে স্কুলের পানীয় জলের নমুনা পরীক্ষাও করাতে হবে এই নতুন কমিটিকে।

বিঃদ্র: নতুন কোনো চাকরির আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হয়ে যান। নিচে যুক্ত (Join) হওয়ার লিংক দেওয়া রয়েছে ঐ লিংকে ক্লিক করলেই যুক্ত হয়ে যেতে পারবেন। ওখানেই সর্বপ্রথম আপডেট দেওয়া হয়। আর আপনি যদি অলরেডি যুক্ত হয়ে থাকেন এটি প্লিজ Ignore করুন। 

Important Links:  👇👇
কাজকর্ম WhatsApp গ্রুপে জয়েন হোনClick Here
✅ Telegram ChannelJoin Now

🔥 আরো আপডেট 👇👇

🎯 অষ্টম শ্রেণি পাশে প্রাইমারি শিক্ষকের চাকরি (দুর্নীতি)

🎯 সংখ্যালঘু উন্নয়ন দপ্তরে সুপারভাইজার পদে চাকরি 

🎯 এমনটা করলে গ্রামের স্কুল গুলো ফাঁকা হয়ে যাবে