ভারতীয় সেনায় ৮০ হাজার পদ কমে যাচ্ছে, আর হবে না নিয়োগ! কেন তা বিস্তারিত জানুন

ভারতবর্ষের তরুণদের কাছে কর্মসংস্থানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় সেনাবাহিনী (Indian Army)। দেশের বহু যুবক ছোট থেকে স্বপ্ন দেখে, সেনাবাহিনীতে চাকরি করে দেশমাতৃকার সেবা করবে। এর পাশাপাশি সেনাবাহিনীর চাকরিতে সম্মান যেমন আছে, তেমনই নিশ্চিত উপার্জনের সুযোগ থাকে।

কিন্তু নরেন্দ্র মোদি সরকার ধীরে ধীরে সেনাবাহিনীর স্থায়ী পদের সংখ্যা কমিয়ে দিতে শুরু করেছে। অগ্নিপথ প্রকল্প (Agnipath Scheme) এনে সেনাবাহিনীর স্থায়ী চাকরিতে বড় কোপ মেরেছে কেন্দ্র। এবার তারা ঠিক করেছে ভারতীয় সেনার ট্রেডসম্যান পদে কর্মরত ৮০ হাজার জ‌ওয়ানের পদ তুলে দেবে!

80 thousand posts are decreasing in the Indian Army

কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের কী প্রভাব পড়বে?

1/8: সেনাবাহিনীর ৮০ হাজার ট্রেডসম্যান (Tradesman) পদ তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তকে এক কথায় ব্যাখ্যা করলে বলতে হয়, সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে আরও একটু সুযোগ কমল নতুন প্রজন্মের সামনে। বিশেষ করে যারা সেনাবাহিনীতে চাকরি করতে চায় তাদের কাছে এটা নিঃসন্দেহে দুঃসংবাদ।

2/8: মুচি, ঝাড়ুদার, ইলেকট্রিশিয়ান, রাঁধুনী আবার প্রযুক্তিবিদ সহ ভারতীয় সেনায় নানান ট্রেডে বহু জ‌ওয়ান কর্মরত আছেন। ট্রেডসম্যান পদে কর্মরত জওয়ানদেরও যুদ্ধের ট্রেনিং দেওয়া হয়। প্রয়োজনে তাঁরাও যুদ্ধক্ষেত্রে গিয়ে বন্দুক হাতে লড়াই করেন। পাশাপাশি সেনাবাহিনী যাতে সঠিকভাবে নিজের ভূমিকা পালন করতে পারে, জওয়ানরা যাতে ঠিক করে যুদ্ধ করতে পারে তার জন্য এই ট্রেডসম্যানদের ভূমিকা অপরিসীম।

3/8: কিন্তু বেশ কিছুদিন হলো সেনাবাহিনীতে আধুনিকীকরণের চেষ্টা করছে কেন্দ্রীয় সরকার। আর তা করতে গিয়েই সরকারের মনে হয়েছে স্থায়ী ট্রেডসম্যান জ‌ওয়ান নিয়োগের প্রয়োজনীয়তা ফুরিয়েছে। 

আরো চাকরি: পশ্চিমবঙ্গ বন্ধন ব্যাংক নিয়োগ ২০২৩

4/8: কেন্দ্রীয় সরকার সূত্রে খবর, ট্রেডসম্যান পদে স্থায়ী জওয়ান নিয়োগের পরিবর্তে বেসরকারি এজেন্সির হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়া হবে। তারা ঠিকে কর্মী দিয়ে এই কাজ করবে। বর্তমানে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে প্রায় ৮০ হাজার ট্রেডসম্যান জ‌ওয়ান কর্মরত। এদের কাউকে কেন্দ্রীয় সরকার বরখাস্ত করবে না। কিন্তু এই পদগুলি তুলে দেবে। অর্থাৎ কোন‌ও জ‌ওয়ান অবসর নেওয়ার পর সেখানে আর ট্রেডসম্যান পদে নতুন কাউকে নিয়োগ করা হবে না। 

5/8: তবে পুরো ৮০ হাজার ট্রেডসম্যানের পদ‌ই কেন্দ্রীয় সরকার তুলে দেবে ব্যাপারটা কিন্তু তা নয়। সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রক ঠিক করেছে হাজার খানেক ট্রেডসম্যান রেখে দেওয়া হবে। যাদের অতি সংবেদনশীল সামরিক ঘাঁটি এবং যুদ্ধ লাগলে সেই সময় ব্যবহার করা হবে। নিরাপত্তার কারণে এই সমস্ত সংবেদনশীল জায়গায় বাইরের এজেন্সির লোককে ঢুকতে দেওয়া হবে না। সেখানে ওই গুটিকতক স্থায়ী ট্রেডসম্যান কাজ সামলাবেন।

আরো চাকরি: ১৫ বছর পর রাজ্যের সেচ দফতরে চাকরি

6/8: উল্লেখ্য, অগ্নিপথ প্রকল্পের মাধ্যমে চার বছরের জন্য চুক্তির ভিত্তিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে অগ্নিবীর অর্থাৎ চুক্তিভিত্তিক সেনা নিয়োগ শুরু হয়েছে। এই নিয়ে গোটা দেশ উত্তাল হয়েছিল। বিশেষত উত্তর ভারতে এর প্রভাব পড়েছিল যথেষ্ট। কিন্তু কেন্দ্র নিজের সিদ্ধান্ত বদলায়নি।

7/8: এবার তারা ট্রেডসম্যান জ‌ওয়ানের পদ তুলে দিতে চলেছে। ভারতীয় সেনা সুত্রে খবর, বর্তমান পরিস্থিতিতে লোক সংখ্যার থেকেও আরও বেশি প্রযুক্তি নির্ভর মানবসম্পদ (Human Resourse) প্রয়োজন। ট্রেডসম্যান যে কাজ করেন তার অনেক কিছুই বর্তমানে কম্পিউটার দিয়ে হয়ে যায়।

8/8: এই অবস্থায় অতিরিক্ত ও অপ্রয়োজনীয় নিয়োগ চলতে থাকলে খরচের বোঝা অনেকটাই বাড়বে। প্রসঙ্গত ভারতীয় সেনাবাহিনীর বর্তমান সেনাদের বেতন ও অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্মীদের পেনশন দিতে গিয়ে মোটা টাকা খরচ হয় কেন্দ্রীয় সরকারের। সেই খরচের বোঝা কমাতেই ৮০ হাজার ট্রেডসম্যান পদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে বিশেষজ্ঞদের একাংশের ধারণা।

বিঃদ্র: নতুন কোনো চাকরি ও কাজের আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হয়ে যান। নিচে যুক্ত (Join) হওয়ার লিংক দেওয়া রয়েছে ঐ লিংকে ক্লিক করলেই যুক্ত হয়ে যেতে পারবেন। ওখানেই সর্বপ্রথম আপডেট দেওয়া হয়। আর আপনি যদি অলরেডি যুক্ত হয়ে থাকেন এটি প্লিজ Ignore করুন।  

Important Links:  👇👇
কাজকর্ম WhatsApp গ্রুপে জয়েন হোনClick Here
✅ Telegram ChannelJoin Now

🔥 আরো চাকরির আপডেট 👇👇

🎯 রাজ্যে গ্রুপ-ডি কেয়ারটেকার নিয়োগ

🎯 পশ্চিমবঙ্গের পৌরসভায় বোরো অফিসার নিয়োগ

🎯 ২০২৩ মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্র নিয়ে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত