২০২৩ থেকে কেন্দ্রীয় অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে কলেজে ভর্তি, ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রীর

1/6: কেন্দ্রীয় শিক্ষানীতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে দ্রুত বদলে যাচ্ছে বাংলার শিক্ষা ব্যবস্থা। বিশেষ করে উচ্চশিক্ষায় এই বদল এসেছে। ইতিমধ্যেই সেমিস্টার পদ্ধতিতে পরীক্ষা, নম্বর দেওয়ার ক্ষেত্রে ক্রেডিট সিস্টেম চালুর মতো একাধিক পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। এবার কলেজের ভর্তির প্রক্রিয়াতেও আমূল বদল আসতে চলেছে। তা নিয়ে ঘোষণাও করে দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। 

2/6: এতদিন উচ্চমাধ্যমিক বা দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষার পর নির্দিষ্ট কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হত। মূলত অনলাইনে সংশ্লিষ্ট কলেজের ফর্ম ভরতে হতো। এরপর কলেজগুলি নিজস্ব মেধাতালিকা প্রকাশ করে ছাত্র ভর্তি করতে। এই কারণে অনিশ্চয়তা এড়াতে বহু শিক্ষার্থী একাধিক কলেজের ফর্ম ফিলাপ করত।

College admission through central online portal from 2023

3/6: অনেকে প্রথমে কম নামি কলেজে ভর্তি হতো, পরে ভাল কলেজে নাম উঠলে সেখানে চলে যেত। এই গোটা প্রক্রিয়ার কারণে গ্রাম ও মফস্বলের তুলনায় কম নামি কলেজগুলোয় শেষ মুহূর্তে অনেক সিট ফাঁকা থেকে যেত। পাশাপাশি বহু মেধাবি পড়ুয়া সেরা কলেজে ভর্তি হতে পারত না। এছাড়া কলেজের আসন বিক্রির মতো ঘটনা তো আছেই।

4/6: কিন্তু রাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় শিক্ষানীতি মেনে এমন এক ব্যবস্থা আনতে চলেছে যে স্নাতক স্তরে ভর্তির ক্ষেত্রে এইসব সমস্যা সহজেই দূর হয়ে যাবে। শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু কলেজ শিক্ষকদের একটি সংগঠনের অনুষ্ঠানে গিয়ে জানান, ২০২৩ থেকেই কেন্দ্রীয় অনলাইন ব্যবস্থার মাধ্যমে রাজ্যের কলেজগুলোয় স্নাতকস্তরে ভর্তি নেওয়া হবে। এরজন্য আলাদা পোর্টাল তৈরির কাজ চলছে‌ বলেও তিনি জানান।

5/6: উল্লেখ্য, চলতি বছরে অর্থাৎ ২০২৩ এর স্নাতক স্তরের ভর্তি কেন্দ্রীয় পোর্টালের মাধ্যমে হবে বলে জানিয়েছিল রাজ্য সরকার। যদিও শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। এই নিয়ে ব্রাত্য বসু বলেন, ২০২৩ এ অনলাইন কেন্দ্রীয় পোর্টালের মাধ্যমে ভর্তির পরিকল্পনা থাকলেও শেষ মুহূর্তে কিছু কাজ বাকি থেকে গিয়েছিল। বেশ কিছু টেকনিক্যাল সমস্যা ছিল পোর্টালে। তাই রাজ্য সরকার শেষমুহূর্তে পরিকল্পনা বদলাতে বাধ্য হয়। শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ২০২৩ এর স্নাতক স্তরের ভর্তির ক্ষেত্রে আর কোন‌ও সমস্যা হবে না। এবার কেন্দ্রীয় অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে‌ই ছাত্রর ভর্তি হবে।

6/6: শিক্ষাবিদদের মতে, কেন্দ্রীয় অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে ছাত্রর ভর্তির সিদ্ধান্ত সঠিক। এতে ভর্তি প্রক্রিয়ায় ছাত্রর সংগঠনগুলোর দাপট কমবে। তবে ঐতিহ্যবাহী নামী কলেজগুলোর নিজস্ব প্রবেশিকা পরীক্ষার মাধ্যমে স্নাতক স্তরে ছাত্র ভর্তি নেওয়া তুলে দেওয়া ঠিক হবে না বলে মনে করছেন তাঁরা।

বিঃদ্র: নতুন কোনো চাকরির আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হয়ে যান। নিচে যুক্ত (Join) হওয়ার লিংক দেওয়া রয়েছে ঐ লিংকে ক্লিক করলেই যুক্ত হয়ে যেতে পারবেন। ওখানেই সর্বপ্রথম আপডেট দেওয়া হয়। আর আপনি যদি অলরেডি যুক্ত হয়ে থাকেন এটি প্লিজ Ignore করুন। 

Important Links:  👇👇
কাজকর্ম WhatsApp গ্রুপে জয়েন হোনClick Here
✅ Telegram ChannelJoin Now

🔥 আরো গুরুত্বপূর্ন আপডেট-Click Here