দুয়ারে সরকার ক্যাম্পেই করা যাবে চাকরির আবেদন! বেকারত্ব দূর করতে বড় সিদ্ধান্ত রাজ্যের

এ যেন দুয়ারে চাকরি। রাজ্যে কর্মসংস্থানের সমস্যা দূর করতে অভিনব সিদ্ধান্ত নিল পশ্চিমবঙ্গ সরকার। এবার থেকে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পেই চাকরির দিশা মিলবে। সরকারের এই সিদ্ধান্তে বেকার যুবক-যুবতীরা নিঃসন্দেহে উৎসাহিত হবেন। 

প্রথমেই জানিয়ে রাখি, এই ঘোষনাটি কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকেই করা হয়েছে। আমরা শুধুমাত্র সেই তথ্য রাজ্যের চাকরিপ্রার্থীদের কাছে পৌছে দিচ্ছি। আপনিও যদি বিষয়টি না জেনে থাকেন তবে অবশ্যই ভালো করে জেনে নিন। 

Duyare Sarkar Camp Karmadisha Job Application Start

ঠিক কী হবে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে? 

রাজ্যের ছেলেমেয়েদের আর‌ও বেশি আধুনিক চাকরির উপযোগী করে তুলতে কারিগরি শিক্ষা দফতরকে বেশি করে ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তারাও এবার দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে জুড়তে চলেছে। এর আগে দুয়ারে সরকারে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার, কন্যাশ্রী, সবুজ সাথীর পাশাপাশি বিধবা ভাতা, বার্ধক্য ভাতার মতো সামাজিক প্রকল্পগুলোর পরিষেবা দেওয়া হতো।

এর পাশাপাশি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলা, জন্ম-মৃত্যু সংক্রান্ত সংশাপত্র নিয়ে সমস্যা থাকলে তা মিটিয়ে ফেলা যেত। কিন্তু এর পরের দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে আগের পরিষেবাগুলোর পাশাপাশি ‘কর্মদিশা’ প্রকল্প‌ও যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার।

কর্মদিশা প্রকল্প কী?

দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে বেকার যুবক-যুবতীরা যে প্রকল্পের মাধ্যমে চাকরির জন্য আবেদন জানাতে পারবেন, তার‌ই নাম কর্মদিশা। এই প্রকল্পের মাধ্যমে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে যারা চাকরির আবেদন জানাবেন তাঁদের বিভিন্ন ট্রেডের পেশাদার প্রশিক্ষণ দেবে কারিগরি শিক্ষা দফতর। সম্পূর্ণ বিনামূল্যে এই প্রশিক্ষণ পাওয়া যাবে। উল্টে প্রশিক্ষণ চলাকালীন স্টাইপেন্ড‌ও (মাসিক বেতন) দেবে সরকার।

ফিটার মিস্ত্রি থেকে কল সারানো, আসবাব তৈরি, গার্ডেনিং, সেলাই, বার্বার সহ বহু বিষয়ে পেশাদার ট্রেনিং দিয়ে চাকরির জন্য বাজার উপযোগী করে তুলবে কারিগরি শিক্ষা দফতর। প্রশিক্ষণ শেষে তারাই প্লেসমেন্টের ব্যবস্থা করে দেবে। তবে চাকরি হবে বেসরকারি ক্ষেত্রে, সরকার সরাসরি কাউকে নিয়োগ করবে না।

কর্মদিশা প্রকল্পে আবেদনের জন্য যোগ্যতা

কর্মদিশা প্রকল্পে আবেদন করতে হলে আপনাকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা ও ১৮ বছরের বেশি বয়সী হতে হবে।

কর্মদিশা প্রকল্পে আবেদনের ক্ষেত্রে ‘আমার কর্মদিশা’ নামে একটি অ্যাপ এনেছে রাজ্য সরকার। যা কর্মপ্রার্থীদের কাছে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই অ্যাপের মাধ্যমে‌ই বেকাররা চাকরির আবেদন করতে পারবেন।

আমার কর্মদিশা অ্যাপের মাধ্যমে কীভাবে আবেদন করবেন?

• প্রথমে প্লে স্টোর থেকে আমার কর্মদিশা (Amar Karmadisha) অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। 

• আমার কর্মদিশা অ্যাপে ক্লিক করলেই প্রথমে ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বর ও জন্ম তারিখ, অর্থাৎ ডেট অফ বার্থ দিতে হবে। এরপর Get OTP অপশনে ক্লিক করতে হবে। আপনার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে একটি ওটিপি বা ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড আসবে।

• পরের ধাপে ওটিপি দিলে ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে।

• এরপর একটি ফর্ম খুলে যাবে সামনে। সেখানে নিজের নাম, শিক্ষাগত যোগ্যতা, সম্পূর্ণ ঠিকানা, চালু ইমেইল অ্যাড্রেস, ফের জন্ম তারিখ, মোবাইল নম্বর দিয়ে সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। এরপর সেভ অপশনে ক্লিক করতে হবে।

• এরপর সামনে বিভিন্ন ধরনের কাজের ছবি এবং তার বিস্তারিত বিবরণ আসবে। সেগুলির মধ্যে থেকে পছন্দমতো কাজ বেছে নিয়ে ক্লিক করতে হবে।

• এবার সামনে কতগুলি প্রশ্ন আসবে। সঠিকভাবে ভেবেচিন্তে সেই প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।

• সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার ফের শিক্ষগত যোগ্যতা বিস্তারিত জানাতে হবে। এর ভিত্তিতে চাকরিপ্রার্থীকে জানানো হবে তিনি কোন কোন কাজের যোগ্য। সেই মতো কোন বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিলে ভালো হবে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া সহজ হয়ে যাবে।

👍 নতুন নতুন চাকরি ও কাজের আপডেট মিস না করতে চাইলে আমাদের ‘টেলিগ্রাম চ্যানেলে’ যুক্ত হয়ে যান

🔥 আরো চাকরির আপডেট 👇👇

🎯 রাজ্যে ২৫ হাজার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ঘোষনা

🎯 কৃষি এবং গ্রামীণ উন্নয়ন দপ্তরে চাকরির বিজ্ঞপ্তি

🎯 রাজ্যের 30 হাজার ছেলে-মেয়ের হাতে চাকরির নিয়োগপত্র