উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা 2023 এর নিয়ম বদলে গেল, না জানলে সমস্যায় পড়বে পরীক্ষার্থী

উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা (HS Exam 2023) পদ্ধতিতে বড়সড় নিয়ম পরিবর্তন। আমূল বদলে গেল উত্তর লেখার ধরণ। সেইসঙ্গে পরীক্ষার শেষে খাতা জমা দেওয়ার ক্ষেত্রেও এবার থেকে নতুন পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে পরীক্ষার্থীদের। সবমিলিয়ে Higher Secondary Exam 2023 সম্পূর্ণ নতুন রূপে হাজির হচ্ছে। পরীক্ষার আগেই এই বিষয়টি না জানলে সমস্যায় পড়তে হবে পরীক্ষার্থীকে। 

জীবনের অতি গুরুত্বপূর্ণ এই উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার নতুন নিয়মের সঙ্গে সরগর হয়ে ওঠার জন্য পরীক্ষার্থীদের হাতে মাত্র ছ’মাস সময় আছে। উল্লেখ্য ২০২৩ সালের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হচ্ছে ১৪ মার্চ থেকে।

HS Exam 2023 Rules Change For Students

কী ছিল কী হল?

উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তরপত্র লেখার নিয়মে খুব গুরুত্বপূর্ণ এক পরিবর্তন এসেছে। চলতি বছরের জুলাই মাসের ৬ তারিখ উচ্চশিক্ষা সংসদের পক্ষ থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে এই নিয়ম পরিবর্তনের বিষয়টি জানানো হয়। কিন্তু অনেক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর নজরেই বিষয়টি আসেনি। তাই সেটা তুলে ধরার জন্যই আমাদের এই বিশেষ প্রতিবেদন।

উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার নিয়মের পরিবর্তন বুঝতে হলে আগে কী ছিল সেটা ভালো করে জানতে হবে। গত কয়েক বছর ধরে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা তাদের থিওরি পেপার, অর্থাৎ লিখিত পরীক্ষায় দুটি ভাগে প্রশ্ন ও উত্তরপত্র পেত। Part-A ও Part-B, এই দুই ভাগে প্রশ্ন ও উত্তরপত্র আসত। পার্ট-এ অংশে বর্ণনামূলক প্রশ্ন থাকত। এই অংশের প্রশ্ন এবং উত্তরপত্র পরীক্ষার শুরুতেই পরীক্ষার্থীদের দেওয়া হতো। এক্ষেত্রে কোনও পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত থাকলেও সমস্যা হতো না। তার প্রশ্ন এবং উত্তরপত্র দিব্যি পরের জনকে দিয়ে দেওয়া যেত। কিন্তু জটিলতা ছিল পার্ট-বি অংশের প্রশ্ন নিয়ে।

অতীতের নিয়ম পরিবর্তনের পর পার্ট-বি অংশের প্রশ্নপত্রের মধ্যেই তার উত্তর লিখতে হতো। এই অংশটিতে মূলত মাল্টিপল চয়েস ধর্মী ও অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন থাকত। যার ফলে প্রশ্নপত্রের মধ্যেই উত্তর লিখে ফেলা যায়। এই অংশটি পরীক্ষার শুরুতেই দেওয়া হয় না। পরে পরীক্ষার্থীদের দিতেন ইনভিজিলেটররা। এক্ষেত্রে কোনও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত থাকলে তার জন্য বরাদ্দ প্রশ্ন কাম উত্তরপত্র অন্যকে দেওয়া যেত না, সেটা রেখে দিতে হতো। সব শেষে পার্ট-এ এর উত্তরপত্রের সঙ্গে পার্ট-বি এর প্রশ্ন কাম উত্তরপত্র জুড়ে পরীক্ষকের কাছে জমা দিতে হতো।

কিন্তু নতুন নিয়মের ফলে ২০২৩ সালের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের এতো জটিলতার সম্মুখীন আর হতে হবে না। তাদের একটাই প্রশ্ন ও উত্তরপত্র দেওয়া থাকবে। সেখানে কোন‌ও পার্ট-এ পার্ট-বি এর বিভাজন থাকবে না। প্রশ্নর দাগ নম্বর মিলিয়ে উত্তর লেখার পর শুধু উত্তরপত্রই পরীক্ষকের হাতে জমা দিলে চলবে। প্রশ্নপত্র নিয়ে বাড়ি চলে আসতে পারবে।

তবে প্রশ্ন ও উত্তরপত্র লেখার নিয়মের পরিবর্তন হলেও প্রশ্নের ধরণ বা প্রশ্ন পিছু বরাদ্দ নম্বর বিভাজনের কোন‌ও পরিবর্তন ঘটছে না। এর ফলে পরীক্ষার্থীদের আশঙ্কার খুব কিছু নেই। বিশেষজ্ঞ শিক্ষকদের মতে এই নতুন নিয়মের ফলে জটিলতা কমবে, তাতে কিছুটা হলেও সুবিধা হতে পারে পরীক্ষার্থীদের।

👍 চাকরি ও কাজের আপডেট মিস না করতে চাইলে আমাদের ‘টেলিগ্রাম চ্যানেলে’ যুক্ত হয়ে যান

▶️ ডেইলি চাকরি ও কাজের আপডেটঃ Job Update