“মুখ্যমন্ত্রীর দ্বায়িত্ব নয় চাকরি দেওয়া”! চাকরি প্রার্থীদের আন্দোলন তুলতে চেয়ে হাইকোর্টে মামলা

1/9 যোগ্য চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন নিয়ে এবার প্রশ্ন উঠে গেল। কেন তাঁরা দিনের পর দিন রাস্তায় বসে আন্দোলন করছেন তার জবাবদিহি চেয়ে আদালতে মামলা দায়ের হল। রাজ্যের রাজধানী কলকাতায় এভাবে আন্দোলন করার তীব্র বিরোধিতা করেন মামলাকারী।

2/9 কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের এজলাসে চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলনের বিরোধিতা করে এক জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা করেছেন রামপ্রসাদ সরকার নামে এক আইনজীবী। সোমবার এই মামলা দায়ের হয়। সেখানে আন্দোলন তোলার জন্য হাইকোর্টের হস্তক্ষেপ প্রার্থনা করা হয়েছে।

3/9 জনস্বার্থ মালদায় মামলাকারী রামপ্রসাদ সরকার বলেছেন, আন্দোলনকারীরা দিনের পর দিন এভাবে রাস্তা আটকে আন্দোলন করতে পারে না। ওরা চাকরির যোগ্য হলে আদালতে আসুক। তা না করে কোন স্বার্থে তারা রাস্তায় বসে আছেন সেই প্রশ্ন‌ও তুলেছেন।

4/9 ঘটনা হল, এস‌এসসি’র বঞ্চিত চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন ৬০৪ দিন পেরিয়ে গিয়েছে। এছাড়াও টেট পাস সহ শিক্ষাক্ষেত্রের অন্যান্য বঞ্চিতরাও রাস্তায় বসে আন্দোলন করছেন। এক‌ইসঙ্গে তাঁদের সকলের‌ই মামলা আদালতে বিচারাধীন। তাঁদের সঙ্গে হ‌ওয়া অন্যায়ের প্রতিকার চেয়েই সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ উপায়ে এই আন্দোলন চলছে। ফলে মামলাকারীর দাবি পুরো ঠিক তা বলা যায় না।

5/9 এছাড়াও মামলাকারী রামপ্রসাদ সরকার তাঁর আবেদনে বলেন, “মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব নয় চাকরি দেওয়ার!” তাঁর যুক্তি, মুখ্যমন্ত্রী সাংবিধানিক পদে আছেন। তার মানে এই নয় যে বেকারদের চাকরি দেওয়া তাঁর আবশ্যিক কর্তব্য।

6/9 মামলা কারীর এই বক্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যেই আন্দোলনকারী চাকরিপ্রার্থীদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। নির্বাচিত সরকারের প্রধান হলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি যদি স্বচ্ছভাবে বেকারদের চাকরি দেওয়ার ক্ষেত্রে দায়বদ্ধ না হন তবে কে হবে? এই প্রশ্ন উঠছে।

7/9 এছাড়াও মামলাকারীর মতে, কল্লোলিনী কলকাতাকে আন্দোলনপুরী বানিয়ে ছেড়েছে চাকরিপ্রার্থীরা। তাদের জন্য রাজ্যের ভাবমূর্তি খারাপ হচ্ছে। তাই রামপ্রসাদ সরকারের আদালতের কাছে আর্জি, তাঁরা হস্তক্ষেপ করে বুঝিয়ে দ্রুত যেন এই ধর্না-আন্দোলন যেন তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন।

8/9 চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন তোলা নিয়ে দায়ের হ‌ওয়া এই জনস্বার্থ মামলাটি শুনতে রাজি হয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব।

9/9 এদিকে আন্দোলনকারীদের বক্তব্য, গণতন্ত্রে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের অধিকার আছে। তাঁরা সেটাই করছেন। তবে কীসের অসুবিধা হচ্ছে সেই প্রশ্ন তুলেছেন তাঁরা।

বিঃদ্র: নতুন কোনো চাকরির আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হয়ে যান। নিচে যুক্ত (Join) হওয়ার লিংক দেওয়া রয়েছে ঐ লিংকে ক্লিক করলেই যুক্ত হয়ে যেতে পারবেন। ওখানেই সর্বপ্রথম আপডেট দেওয়া হয়। আর আপনি যদি অলরেডি যুক্ত হয়ে থাকেন এটি প্লিজ Ignore করুন। 

Important Links:  👇👇
কাজকর্ম WhatsApp গ্রুপে জয়েন হোনClick Here
Telegram ChannelJoin Now

🔰 আরো চাকরির আপডেট 👇👇

🔥 রাজ্যে সাপোর্ট স্টাফ পদে চাকরি

🔥 ৫৪.৬৭ কে ৫৫ করার দাবী টেট চাকরিপ্রার্থীদের

🔥 টেটের নম্বর নিয়ে এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলো পর্ষদ