রাজ্যে শুরু হল ‘বাংলার ডেয়ারি’- থাকছে কর্মসংস্থানের সুযোগ

পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজ্যের নিজস্ব দুগ্ধ ডেয়ারি শুরু করেছে। ২০১৫ সালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মন্ত্রীসভায় রাজ্যের নিজস্ব ডেয়ারির ব্যাপারে আলোচনা করেছিলেন এবং সেখানে রাজ্যের ডেয়ারি শিল্পকে নতুনভাবে সাজানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেইমতোই পশ্চিমবঙ্গে ‘বাংলার ডেয়ারি’ নামের নতুন দুগ্ধ ব্র্যান্ডের শুরু হয়েছে। 

Job Opportunities in Bangla Dairy Industry

‘বাংলার ডেয়ারি’-তে কর্মসংস্থান

পশ্চিমবঙ্গে আগে থেকেই মাদার ডেয়ারি নামের ডেয়ারি শিল্প চালু ছিল। কিন্তু তার ব্যাবসা সেই মাত্রায় ছিল না। যেকারনে মুখ্যমন্ত্রী এর নাম বদলে ‘বাংলার ডেয়ারি’ করে। সেইসাথে কাজের ক্ষেত্রে তাতে অনেক সংস্কার করা হয়। সূত্র মারফৎ জানা গেছে কোলকাতা, হাওড়া, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণা এবং হুগলি জেলায় মোট 512 টি আউটলেট তৈরি করা হবে। এতগুলি আউটলেটে কাজের জন্য লোক নিয়োগ করা হবে। যেকারনে এই ‘বাংলার ডেয়ারি’-তে অনেকে বেকারদের কর্মসংস্থান হবে বলে আশা করা হচ্ছে। 

‘বাংলার ডেয়ারি’ শুরু করার কারন

ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে নিজস্ব ডেয়ারি বা দুগ্ধ শিপ্লের ব্র্যান্ড রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গেও মাদার ডেয়ারি নামের দুধের শিল্প ছিল। কিন্তু তার কাজের ক্ষেত্রে বিভিন্ন সংষ্কারের প্রয়োজন ছিল। তাই পশ্চিমবঙ্গ সরকার মাদার ডেয়ারির নাম পরিবর্তন করে রাখে ‘বাংলার ডেয়ারি’। এতে একদিকে যেমন রাজ্যের দুগ্ধ শিপ্লের সংস্কার সম্ভব হল, তেমনি অন্যদিকে রাজ্যের নিজস্ব ডেয়ারি ব্র্যান্ডও তৈরি হল। 

বাংলায় দুগ্ধ শিল্পের প্রসার

গত বছরের নভেম্বর মাস থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে ‘বাংলার ডেয়ারি’ এর কাজ শুরু হয়েছে। এতে দুগ্ধজাত বিভিন্ন দ্রব্য যেমন ঘি, পনির, মাধন, ঘোল, পেঁড়া ইত্যাদি তৈরি করা হবে এবং নিজস্ব রাজ্যে সেইসাথে অন্য রাজ্যেও বিক্রি করা হবে। সেইসাথে দুগ্ধ শিল্পের প্রসারের কারনে অন্যান্য ছোটখাটো শিল্প গড়ে উঠবে, যাতে কিছুটা হলেও কর্মসংস্থান হবে। 

এগুলোও পড়ুন-