আর কলেজে যেতে হবে না, শীঘ্র শুরু হচ্ছে ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়! বিস্তারিত জানুন

২০২৩ সালে ভারতবর্ষে লেখাপড়া শেখার ব্যবস্থা একেবারে বদলে যাওয়ার মুখে দাঁড়াতে চলেছে। বর্তমান সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এক যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক‌। তাদের এই সিদ্ধান্তের ফলে বহু ছাত্র-ছাত্রীর যেমন বিপুল সুবিধা হবে, তেমনই দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাটাই সম্পূর্ণ অন্য খাতে বয়ে যেতে পারে বলে বিশেষজ্ঞদের অনুমান।

No need to go to college anymore digital university is starting soon

২০২৩ সালে চালু হচ্ছে ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি

1/6: কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক সূত্রে খবর, চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়েই ভারতবর্ষের চালু হতে চলেছে প্রথম ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির। তার নাম হবে ন্যাশনাল ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি বা NDU। ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে।

2/6: সূত্রের খবর, বর্তমানে যেভাবে ভার্চুয়াল দুনিয়ার প্রভাব সর্বক্ষেত্রে বাড়ছে, বাস্তব জগতের সঙ্গে যেভাবে ভার্চুয়াল জগতে তাল মিলিয়ে চলতে শুরু করেছে নতুন প্রজন্ম, ঠিক একইরকমভাবে চলতি শিক্ষা ব্যবস্থার পাশাপাশি সমান্তরালে চলতে থাকবে এই ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির পড়াশোনা।

3/6: নাম শুনেই বুঝতে পারছেন গোটা বিষয়টাই ডিজিটালি হবে। এই ইউনিভার্সিটির জন্য কোন‌ও ইট বালি সিমেন্টের তৈরি ক্যাম্পাস বা ভর্তির জায়গা, পরীক্ষাকেন্দ্র এই সব কিছুই থাকবে না। যা হবে সব কিছু ডিজিটালি হবে। প্রথমে এই ইউনিভার্সিটির একটি ক্যাম্পাস থাকলেও কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রকের পরিকল্পনা অনুযায়ী ধাপে ধাপে এই ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাস সংখ্যা বাড়ানো হবে। কিন্তু সেটাও হবে ডিজিটালি। এই ইউনিভার্সিটির একাধিক ক্যাম্পাস থাকতে পারে, কিন্তু বাস্তবে ইট বালি কাঠ সিমেন্ট দিয়ে তৈরি কোনও বিল্ডিংয়ের অস্তিত্ব থাকবে না।

4/6: কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথম দিকে সার্টিফিকেট ও ডিপ্লোমা কোর্সের পড়াশোনা শুরু হবে ন্যাশনাল ডিজিটাল ইউনিভার্সটিতে। তবে বছর কয়েকের মধ্যেই এখানে ডিগ্রি পাঠক্রম শুরু করে দেওয়ার পরিকল্পনা আছে।

5/6: এই বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠক্রমের ক্ষেত্রে তুলনায় অন্যরকম এবং বর্তমান প্রজন্মের উপযোগী বিষয়গুলির উপরই জোর দেওয়া হবে। তবে শিক্ষাবিদদের একাংশের ধারণা, প্রযুক্তি যেভাবে এগিয়ে চলেছে তাতে ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিজিটালি ফিজিক্স, কেমিস্ট্রির গবেষণার সুযোগও ভবিষ্যতে পাওয়া যেতে পারে! তবে সেইসব শুরুতেই থাকবে বলে মনে হয় না।

6/6: কেন্দ্রের SWAYAM প্ল্যাটফর্মে কাজ করবে এই ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি। অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো এরও উপাচার্য, শিক্ষক সবাই থাকবেন। কিন্তু সবকিছুই ডিজিটালি হবে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের গঠনতন্ত্র ও নিয়মবিধি তৈরির কাজ জোরকদমে চলছে বলে জানা গিয়েছে।

বিঃদ্র: নতুন কোনো চাকরি ও কাজের আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হয়ে যান। নিচে যুক্ত (Join) হওয়ার লিংক দেওয়া রয়েছে ঐ লিংকে ক্লিক করলেই যুক্ত হয়ে যেতে পারবেন। ওখানেই সর্বপ্রথম আপডেট দেওয়া হয়। আর আপনি যদি অলরেডি যুক্ত হয়ে থাকেন এটি প্লিজ Ignore করুন।  

Important Links:  👇👇
কাজকর্ম WhatsApp গ্রুপে জয়েন হোনClick Here
✅ Telegram ChannelJoin Now

🔥 আরো চাকরির আপডেট 👇👇

🎯 রাজ্যের রামকৃষ্ণ শিক্ষা মন্দিরে চাকরি

🎯 ২০২৩ সালে কর্মী নিয়োগ নিয়ে কি বলছে বিভিন্ন সংস্থা

🎯 গ্রুপ-C, গ্রুপ-D, সিকিউরিটি গার্ড ইত্যাদি পদে নিয়োগ