রাজ্যে পাট শিল্পে প্রচুর কর্মসংস্থান, ট্রেনিং করেই চাকরির সুযোগ

আমাদের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ এক সময় পাট শিল্পে বেশ ভালো উন্নত ছিল। কিন্তু বর্তমানে রাজ্যের পাট শিল্পের অবস্থা খুব একট ভালো চলছে না। বর্তমানে বিভিন্ন পাটকল বন্ধ হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আমাদের রাজ্যের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাট শিল্পে দক্ষতা বৃদ্ধি এবং কর্মসংস্থানের জন্য ট্রেনিং বা প্রশিক্ষনের ব্যাবস্থা করেছেন। 

প্রশিক্ষন শেষে থাকবে কাজের সুযোগ এবং মাসিক বেতন। আজকের এই পোষ্টে আমরা রাজ্যের শ্রম দপ্তর থেকে জারি করা পাট শিল্পে দক্ষতা বৃদ্ধি এবং কর্মসংস্থান মূলক এই প্রশিক্ষনের বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত জানবো। আশা করছি নিচের দেওয়া তথ্য গুলি পড়লে বিষয়টি আপনার কাছে স্পষ্ট হয়ে যাবে।

West Bengal Jute Industry Employment After Training

কেন এই প্রশিক্ষন?

পশ্চিমবঙ্গের একটি গুরুত্বপুর্ন শিল্প হচ্ছে পাট শিল্প। এই পাট শিল্পের সাথে রাজ্যের হাজার হাজার বা লক্ষ লক্ষ মানুষ সরাসরি এবং পরোক্ষভাবে যুক্ত রয়েছে। কিন্তু বর্তমান সময়ে পাট শিল্পের জন্য রাজ্যে সুদক্ষ এবং প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত শ্রমিকের দারুন অভাব রয়েছে। আর এই অভাব পূরনের জন্য রাজ্য সরকার এই কর্মমূখী পাট শিল্পের প্রশিক্ষনের ব্যাবস্থা করেছে। 

ট্রেনিং বা প্রশিক্ষনের সময়সীমা

  • প্রথাগত প্রশিক্ষণ করানো হবে ১ মাস
  • হাতে কলমে প্রশিক্ষন করানো হবে ২ মাস

প্রশিক্ষনের স্থান

রাজ্যের ১২ টি জেলার বিভিন্ন কর্ম বিনিয়োগ কেন্দ্রে এই প্রশিক্ষন করানো হবে। এগুলি হল- বাঁকুড়া, হাওড়া, দমদম, ব্যারাকপুর, চুঁচুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বোলপুর, কালনা, শ্রীরামপুর, উলুরেড়িয়া এবং বসিরহাটে। 

প্রয়োজনীয় যোগ্যতা

এই প্রশিক্ষন করার জন্য আবেদনকারীকে অবশ্যই কমপক্ষে স্বাক্ষর হতে হবে এবং এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কে নাম নথিভুক্ত করা থাকতে হবে। 

বয়সসীমা 

১৮ বছরের বেশি বয়স হলেই এই প্রশিক্ষন নেওয়ার জন্য আবেদন করা যাবে। 

প্রশিক্ষন চলাকালীন এবং প্রশিক্ষনের পরে বেতন

  • প্রশিক্ষন চলাকানীন কোনো বেতন বা ভাতা দেওয়া হবে না। তবে এই সময়ে বিনামূল্যে থাকা এবং খাওয়ার ব্যাবস্থা থাকবে। 
  • প্রশিক্ষণের পরে প্রতিদিন 370 টাকা সাথে 15 টাকা হাজিরা ভাতা দেওয়া হবে। সেইসাথে সরকারি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দেওয়া হবে। 

প্রশিক্ষনের সময় যেসমস্ত কাজ শেখানো হবে

  • পাটের বাছাই থেকে শুরু করে পাট নরম করা। 
  • পাটের পাইলিং করা
  • পাটের বিভিন্ন কার্ডিং পদ্ধতি, পাটের বিভিন্ন রকম ড্রয়িং পদ্ধতি
  • পাটের স্পিনিং পদ্ধতি, পাটের বিভিন্ন রকম ওয়াল্ডিং পদ্ধতি
  • পাটের বিভিন্ন রকমের বিমিং পদ্ধতি
  • পাটের বিভিন্ন রকম উইভিং পদ্ধতি
  • বস্তার বিভিন্ন রকমের সেলাই করার পদ্ধতি
  • বস্তা ছাপানো ইত্যাদি কাজ 

বিঃদ্রঃ  যারা এই কাজের জন্য প্রশিক্ষন নিতে ইচ্ছুক তাদেরকে নিকটবর্তী জেলা কর্মবিনিয়োগ কেন্দ্রে শীঘ্র যোগাযোগ করতে হবে।

চাকরি ও কাজের আপডেট মিস না করতে চাইলে আমাদের ‘টেলিগ্রাম চ্যানেলে’ যুক্ত হয়ে যান

kajkarmo.com ওয়েবসাইটে আমরা ডেইলি চাকরির আপডেট, চাকরি পরীক্ষার সিলেবাস, পরীক্ষার প্রশ্নপত্র, চাকরির প্রস্তুতি, কর্মসংস্থান সহ বিভিন্ন বিষয়ের আপডেট দিয়ে থাকি। তাই প্রতিদিন নতুন কোনো চাকরি ও কাজের আপডেট পেতে নিয়মিত “kajkarmo.com”  ভিজিট করুন।