রাজ্যে প্রাইমারি শিক্ষকদের বেতন কত জানেন? এই বেতন হওয়ার কারনেই অনেকে যে করে হোক শিক্ষক হতে চাই

দীর্ঘ পাঁচ বছর পর আবার প্রাথমিকে টেট পরীক্ষা হচ্ছে রাজ্যে। প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের পক্ষ থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। তাতেই বলা হয়েছে, আগামী ১১ ডিসেম্বর পরীক্ষা হবে টেটের। দুর্গাপূজা মিটলেই অনলাইনে টেটের ফর্ম ফিলাপও শুরু হয়ে যাবে।

পাশাপাশি প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের পক্ষ থেকে আরেকটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে প্রায় ১১ হাজার শিক্ষক নিয়োগের কথাও জানানো হয়েছে যার প্রক্রিয়া এক‌ইসঙ্গে পাশাপাশি চলবে। কিন্তু যার জন্য এতো তোড়জোর সেই প্রাইমারি শিক্ষক পদে চাকরি পেলে শুরুতেই বেতন কত হবে জানেন?

আজকের প্রতিবেদনে প্রাথমিক শিক্ষক পদে চাকরি পেলে শুরুতেই বেতন কত হবে সেটা আমরা আপনাদের জানাব-

Primary Teacher Salary in West Bengal

পশ্চিমবঙ্গে প্রাইমারি বা প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন-

রাজ্যে ষষ্ঠ বেতন কমিশন লাগু হয়ে গিয়েছে। ফলে সরকার বা সরকার পোষিত যেকোনও চাকরির ক্ষেত্রেই মাস মাইনে অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। এবারের পশ্চিমবঙ্গের প্রাথমিক শিক্ষক পদে যে বিজ্ঞপ্তি বেরিয়েছে তাতে যারা চাকরি পাবেন সেই ছেলেমেয়েদের শুরুতেই বেসিক পে হবে ২৮,৯০০/- টাকা

সেই সঙ্গে হাউস রেন্ট বা বাড়ি ভাড়া বাবদ বেসিক পে’র উপর প্রতি মাসে আরও ১২% করে টাকা পাবেন। তার উপর চিকিৎসা ভাতা আছে। এছাড়াও রাজ্যের অন্যান্য সরকারি কর্মচারীদের মতো শিক্ষকদেরকেও দেওয়া ৩% শতাংশ ডিএ (DA) দেওয়া হয়। সব মিলিয়ে চাকরির শুরুতেই তাঁরা বেতন পাবেন ৩৩,০০০/- টাকা প্রতি মাসে।

রাজ্যে প্রাইমারি শিক্ষকদের বেতন শুরুতেই এত বেশি হওয়ার কারনে অনেকেই একবার যে করেই হোক শিক্ষক বা স্কুল মাস্টারের চাকরি পেতে চাই। যেকারনে আমাদের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গে সম্প্রতি বিশাল SSC দুর্নীতির ঘটনা সামনে এসেছে। এমন ঘটনারও খবর পাওয়া গেছে, শুধু সাদা খাতা জমা দিয়েও অনেকে শিক্ষকের চাকরি পেয়েছে। কি লেভেলের দুর্নীতি হয়েছে তা এই থেকেই বোঝা যায়। 

রাজ্য সরকারের ডিএ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা চলছে। এই মামলার নিষ্পত্তি শেষে যদি রাজ্যকে কেন্দ্রীয় হারে ডিএ দেওয়ার নির্দেশ আসে তবে প্রাথমিক শিক্ষকদের চাকরি জীবনের প্রারম্ভিক বেতন আরও অনেকটাই বেশি হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে।

বাংলা ছাড়াও অন্য ভাষার শিক্ষক নিয়োগ-

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে যে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে সেখানে বাংলা ছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি ভাষায় শিক্ষক নিয়োগের কথা বলা হয়েছে।

রাজ্যে যে যে ভাষায় শিক্ষক নিয়োগ-

বাংলা, হিন্দি, নেপালি, উর্দু, সাঁওতালি, তেলেগু ও ওড়িয়া ভাষায় শিক্ষক নিয়োগ করবে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

এই ভাষাগুলি প্রথম ভাষা হিসেবে যারা স্কুলে পড়াশোনা করেছেন একমাত্র তারাই প্রাথমিক শিক্ষক পদে আবেদন করতে পারবেন। সেই সঙ্গে পর্ষদ জানিয়েছে প্রত্যেকেরই দ্বিতীয় ভাষা ইংরেজি হতে হবে। ধরুন কারোর প্রথম ভাষা বাংলা এবং দ্বিতীয় ভাষায় হিন্দি হল, তবে সে কোনমতেই প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারবেন না।

দুর্নীতি, বেআইনি শিক্ষক নিয়োগ সহ নানান বিতর্কের জেরে এবারের নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে গোড়া থেকেই অনেক বেশি সাবধানী প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। তাদের বিজ্ঞপ্তির ভাষা চয়নের মধ্যে সেই বিষয়টির ছাপ স্পষ্ট।

👍 প্রতিদিন চাকরির আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের ‘টেলিগ্রাম চ্যানেলে’ যুক্ত হয়ে যান

Join Kajkarmo Telegram.jpeg

🔥 আরো চাকরির আপডেট 👇👇

🎯 রাজ্যে সাদা খাতা জমা দিয়েও হয়েছে চাকরি, ধরা পড়ল ৮১৬৩ জন

🎯 রাজ্যের আদিবাসী উন্নয়ন দপ্তরে চাকরি

🎯 ১ লক্ষ টাকার বেশি বেতনে বর্ধমান ইউনিভার্সিটিতে নিয়োগ