২০১৬-এর উচ্চ প্রাথমিক নিয়োগ কবে? কী ইঙ্গিত দিল হাইকোর্ট

When 2016 higher primary recruitment? What did the High Court indicate?

দীর্ঘ নয় বছর ধরে আটকে রয়েছে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ। 2016 সালের পর থেকে আর নিয়োগ করা হয়নি রাজ্যের উচ্চ প্রাথমিকে। ইতিমধ্যেই কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে কাউন্সেলিং সম্পন্ন হয়েছে, তবে নিয়োগের সুপারিশপত্র দেওয়ার ওপর অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ দিয়েছে আদালত। যদিও কমিশন এবার শর্তসাপেক্ষে নিয়োগ করতে চাইছে।

2016 সাল থেকে আটকে রয়েছে উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া। তাই স্কুল সার্ভিস কমিশন দ্বারস্থ হয় কলকাতা হাইকোর্টের। কমিশন চাইছে, শর্তসাপেক্ষে নিয়োগ শুরু করতে। গত শুক্রবার সেই সংক্রান্ত মামলার শুনানি ছিল কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তীর ডিভিশন বেঞ্চে।

ওই শুনানি চলাকালীন বিচারপতি বলেন, “মামলাকারীদের সমসংখ্যক আসন ফাঁকা রেখে, বাকি শূন্যপদে শুরু করা যেতে পারে নিয়োগ। শুরু করা যেতে পারে সুপারিশ পত্র দেওয়ার কাজও।”

ওইদিন আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় তপোব্রত চক্রবর্তীর উদ্দেশে বলেন, “আপনার কাছে যে মামলাগুলি আছে, সেখানে যদি সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশ বহাল রাখেন তাহলে ঠিক আছে, আর আপনি যদি তার বিপক্ষে যান তাহলেই আপনাকে নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়ে যাবে।”

এই প্রশ্নের প্রেক্ষিতে, বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তী প্রশ্ন রাখেন, “কিছু সংখ্যক মামলাকারীর জন্য কি প্রায় 13 হাজার শূন্যপদে নিয়োগ আটকে রাখা সম্ভব ?”

কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে কাউন্সেলিং সম্পন্ন হলেও সুপারিশপত্র দেওয়ার ওপর বহাল আছে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ ৷ তবে বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তী প্রাথমিক পর্যবেক্ষণে বলেছেন, “শুরু করা যেতে পারে সুপারিশপত্র দেওয়ার কাজ ।”
পাশাপাশি এই মামলায় মামলাকারির সংখ্যা কত, সেটাও বিচারপতি স্কুল সার্ভিস কমিশনকে জানাতে বলেন। আগামী 28 ফেব্রুয়ারি দুপুর 2 টোয় এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে জানিয়েছে কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ ৷

উল্লেখ্য, রাজ্যের উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের তালিকাতে সব মিলিয়ে মোট 13,334 জন প্রার্থী মেধা তালিকা এবং ওয়েটিং লিস্ট মিলিয়ে রয়েছেন। এদের মধ্যে প্রায় ন’হাজার প্রার্থীর প্রথম দফার কাউন্সেলিংয়ে স্কুলে নিয়োগ পেয়ে গিয়েছেন।

কিন্তু, আইনি গেরোর ফলে এতদিন তাঁদের নিয়োগ দেওয়া সম্ভব হচ্ছিল না। এই আইনি জটিলতার কারণেই দ্বিতীয় দফায় বাকি চার হাজারের বেশি প্রার্থীর কাউন্সেলিংও স্থগিত রেখেছে কমিশন। প্রথম দফার প্রার্থীরা নিয়োগ পেয়ে গেলে বাকিদের জন্যও দরজা খুলে যাবে।


বিঃদ্রঃ চাকরি এবং নতুন কোনো নিয়োগের আপডেট, কর্মসংস্থান আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে জয়েন হোন।

🔥 হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ: Join Now

🔥 আরো চাকরির আপডেট 👇👇

👉 রাজ্যে স্বাস্থ্য এবং পরিবার কল্যাণ দপ্তরে চাকরি, ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে নিয়োগ

👉 রাজ্যের ২০২ টি থানায় নতুন শূন্যপদ তৈরি, দ্রুত করা হবে এই নিয়োগ

👉 উচ্চ মাধ্যমিক পাশে রাজ্যের গ্রাম পঞ্চায়েতে চাকরি, মাসিক বেতন ১৬ হাজার টাকা

👉 ৬০৬ শূন্যপদে ইউনিয়ন ব্যাঙ্কে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি, ২৩ ফেব্রুয়ারি অবধি আবেদন চলবে

👉 কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের DA বাড়তে চলেছে, কতটা বাড়বে জানুন

Previous articleপ্রাইমারি নিয়োগে রাজ্য স্তরে কাউন্সিলিংয়ের নোটিশ জারি করল পর্ষদ
Next articleরাজ্যের জেলা পরিষদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি, লিখিত পরীক্ষা ছাড়াই নিয়োগ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here