Internet in School: এবার রাজ্যের সরকারি স্কুলে ফ্রিতে মিলবে ইন্টারনেট! নতুন ভাবনা শিক্ষা দপ্তরের

This time the state will get free internet in government schools! New thinking of education department

বড়ো পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছে রাজ্যের শিক্ষা দপ্তর। এবার থেকে রাজ্যের প্রায় 14 হাজার স্কুলে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা দিতে চলেছে স্কুল শিক্ষা দফতর। স্কুলের ইন্টারনেট পরিষেবা সচল রাখার উদ্দেশ্যেই এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এর ফলে বাংলার শিক্ষা পোর্টালের ব্যবহার ও সরকারি প্রকল্পগুলি থেকে ছাত্রছাত্রীরা দ্রুত সুবিধা পাবে।

স্কুল শিক্ষা দফতরের কমিশনার স্কুল এডুকেশনের তরফ থেকে একটি অফিসিয়াল বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয়েছে যে, রাজ্যের তরফে আগামী তিন বছর তিন মাসের জন্য রাজ্যের উচ্চ প্রাথমিক, মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের সমস্ত স্কুলে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট পরিষেবার ব্যবস্থা করা হবে।

এই মুহূর্তে রাজ্যে সরকার এবং সরকার পোষিত মিলিয়ে মোট স্কুলের সংখ্যা প্রায় 14,500 টি। এই সমস্ত স্কুলগুলিতে উচ্চ ক্ষমতা সম্পূর্ণ ইন্টারনেট পরিষেবার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চলেছে সরকার এবং ইতিমধ্যেই সরকারি একটি সংস্থাকে এই পরিকল্পনা রূপায়ণের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে।

তবে বিজ্ঞপ্তিতে তিন বছর তিন মাসের কথা উল্লেখ করা হয়েছে, কিন্তু তারপর এই পরিষেবার খরচ কারা চালাবে তা উল্লেখ করা না থাকার ফলে, এই খরচ পরে কারা বহন করবে, সেই নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

বর্তমানে রাজ্যের সব স্কুলগুলিকে বাংলা শিক্ষা পোর্টালের মাধ্যমে নিজেদের যাবতীয় তথ্য আপলোড করতে হয়। এক্ষেত্রে অনেক সময়েই শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন স্কুলে ইন্টারনেট পরিষেবা ঠিকঠাক না থাকায় এই পোর্টালটি সঠিক সময় ব্যবহার করা যায় না। ফলে বহু সময় স্কুলগুলিকে অতিরিক্ত ফাইনও দিতে হয়।

অনলাইনের মাধ্যমে স্কুলে যাবতীয় তথ্য আপলোড বিষয়টি বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই শুরু হয়েছে, তখন থেকেই বিভিন্ন শিক্ষক সংগঠনগুলি দাবি করে আসছে যে শহরতলী এবং গ্রামবাংলার ক্ষেত্রে ইন্টারনেট পরিষেবার সমস্যা রয়েছে, তাই সরকারের উচিত এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ গ্রহণ করা। কিন্তু এই হস্তক্ষেপ গ্রহণের ক্ষেত্রে সরকারের দেরী হলেও, অবশেষে সরকারের হস্তক্ষেপে খুশি স্কুলগুলির প্রধান শিক্ষক শিক্ষাকারা।

এই প্রসঙ্গে হিরাপুর এমসিটি গার্লস হাই স্কুলের প্রধানশিক্ষিকা নিবেদিতা আচার্য জানান, “এটি একটি অত্যন্ত ভাল খবর, অতিরিক্ত পরিষেবার জন্য যে অর্থ খরচ হয় সেই টাকা আমরা পড়ুয়াদের কাছ থেকে নিতে পারি না। সে ক্ষেত্রে স্কুলের ব্যয় অনেকটাই বৃদ্ধি পায়। বিগত কয়েক বছর ধরে ধাপে ধাপে সমস্ত কিছুই অনলাইন ব্যবস্থাপনায় করেছে শিক্ষা দফতর, সেখানে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ইন্টারনেটের প্রয়োজনীয়তা বৃদ্ধি পেয়েছে।”

বিঃদ্রঃ চাকরি এবং নতুন কোনো নিয়োগের আপডেট, কর্মসংস্থান আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে জয়েন হোন।

🔥 হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ: Join Now

🔥 আরো চাকরির আপডেট 👇👇

👉 Rail Recruitment 2024: ২০২৪ সালে রেলে আর কী কী চাকরির বিজ্ঞপ্তি বেরোবে?

👉 রাজ্যের স্কুলে লাইব্রেরীয়ান পদে চাকরির বিজ্ঞপ্তি, ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে নিয়োগ

👉 রাজ্যের স্কুল শিক্ষক ও গ্রুপ-ডি সহ বিভিন্ন কর্মীদের নতুন বেতন কাঠামো

👉 ৩২ টি গ্রাম পঞ্চায়েতে নতুন চাকরির বিজ্ঞপ্তি, ১৯ ফেব্রুয়ারি অবধি আবেদন চলবে

👉 Rail Recruitment: এবার থেকে বার্ষিক ক্যালেন্ডার মেনেই রেলে নিয়োগ

Previous articleRail Recruitment 2024: ২০২৪ সালে রেলে আর কী কী চাকরির বিজ্ঞপ্তি বেরোবে?
Next articleCRPF স্কুলে টিচার সহ বিভিন্ন পদে চাকরির বিজ্ঞপ্তি, লিখিত পরীক্ষা ছাড়াই করা হবে নিয়োগ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here