প্রাইমারি চাকরির ইন্টারভিউতে এইভাবে উত্তর দিন, চাকরি নিশ্চিত করতে এগুলি জরুরী

মঙ্গলবার, মানে ২৭ ডিসেম্বর চলতি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ার প্রথম দফার ইন্টারভিউ। এদিন শুধুমাত্র কলকাতা ও সংলগ্ন এলাকার সেই সব চাকরিপ্রার্থীদের ডাকা হয়েছে, যারা ইন্টারভিউ সেন্টার হিসেবে কলকাতাকে বেছেছিল। প্রায় সাড়ে এগারো হাজার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ হবে।

যদিও এই নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে অনেক বিতর্ক আছে। রাজ্যে যত প্রাথমিক শিক্ষক (Primary Teacher) দরকার, তার থেকে অনেক কম নিয়োগ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। তাছাড়া যে শূন্যপদের বিজ্ঞপ্তির ভিত্তিতে এই নিয়োগ, সেখানে বেশিরভাগটাই বিভিন্ন এক্সেম্পটেড ক্যাটাগরিপ্যারা টিচার্সদের জন্য সংরক্ষিত। ফলে ফ্রেস ক্যান্ডিডেটদের নিয়োগের সুযোগ‌ও খুব কম বলে অভিযোগ চাকরিপ্রার্থীদের।

Answer this way in the primary job interview, it is important to secure the job

তবে যত‌ই অভিযোগ-ক্ষোভ থাকুক না কেন ইন্টারভিউয়েরর কল লেটার যখন এসে গিয়েছে তখন এইসব না ভেবে আসল কাজেই মনোনিবেশ করাটা ভালো। এক্ষেত্রে মাথায় রাখতে হবে এটা কোনও সাধারণ চাকরির ইন্টারভিউ নয়। একে তো সরকারি চাকরি, তার উপরে বহু বিতর্কে বিদ্ধ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ইন্টারভিউ (WB Primary Interview)। ফলে খুব সহজ কিছু হবে না। আবার অতিরিক্ত ভয় পেতে হবে এমনও বিষয় নয়। শুধু কতগুলো বিষয় মাথায় রেখে ইন্টারভিউ রুমে প্রবেশ করলেই ব্যাপারটা অনেক সহজ হয়ে যাবে।

কীভাবে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ইন্টারভিউয়ে করা প্রশ্নের উত্তর দেবেন সেই নিয়ে আমাদের কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ থাকল-

(1) প্রথমেই বলার, আপনার যেটা সর্বোচ্চ যোগ্যতা, যে বিষয় নিয়ে পড়াশোনা তার ওপর ভালো করে জেনে যাবেন। ধরুন আপনি ইংরেজি সাহিত্যে স্নাতক, সেক্ষেত্রে ইংরেজি সাহিত্যের হেন বিষয় যেন আপনার প্রস্তুতির তালিকা থেকে বাদ না পড়ে। কারণ আপনি যে বিষয়টি নিয়ে পড়াশোনা করেছেন তার উপর প্রশ্ন আসবেই।

(2) আপনি যে জেলার এবং যে এলাকার বাসিন্দা সেখানকার মনীষী, বিখ্যাত ব্যক্তি বা উল্লেখযোগ্য ঐতিহাসিক ঘটনাগুলো সম্পর্কে ভালোভাবে ওয়াকিবহাল থাকবেন। তা নিয়ে যেকোনও রকমের প্রশ্নের সম্মুখীন হওয়ার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করে ইন্টারভিউয়ে প্রবেশ করবেন। কারণ এই বিষয়ের উপর আপনাকে প্রশ্ন করা হতেই পারে।

(3) যেহেতু আপনি বিএড বা ডিএলএড পাস তাই একজন শিক্ষক হিসেবে ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের কীভাবে পড়াবেন সেই বিষয়টি ইন্টারভিউ বোর্ড আপনার কাছে জানতে চাইতে পারে। মানে এই বিষয়ে আপনার অভিমত কী, আপনি বিষয়টিকে কেমনভাবে দেখছেন সেটা তাঁরা বুঝে নেওয়ার চেষ্টা করবে। এক্ষেত্রে চাইল্ড পেডাগগি মাথায় রেখে আপনাকে উত্তর দিতে হবে। মনে রাখবেন, আপনি অতীতে যেভাবে পড়াশোনা করেছিলেন বর্তমানে লেখাপড়া অনেক বদলে গিয়েছে।

(4) পশ্চিমবঙ্গের প্রাথমিক শিক্ষার সিলেবাস, প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত কোন বিষয়ে কী কী জিনিস পড়ানো হয় সেই সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা নিয়ে ইন্টারভিউয়ে বসা উচিৎ। কারণ এই জায়গা থেকে প্রশ্ন আসার সম্ভাবনা যথেষ্ট বেশি। এক্ষেত্রে সঠিক উত্তর না দিতে পারলে আপনার সম্বন্ধে নেতিবাচক ধারণা তৈরি হতে পারে।

(5) ইন্টারভিউয়ে আত্মবিশ্বাস নিয়ে বসবেন। তবে কখনোই ওভারস্মার্ট হবেন না। যদি কোন‌ও প্রশ্নের উত্তর জানা না থাকে তবে সোজাসুজি বলবেন এটা জানি না, বা এই মুহূর্তে মনে পড়ছে না। জানি কিন্তু ঠিক মাথায় আসছে না, ইস ভুলে গেলাম এই ধরনের কোন‌ও মন্তব্য ইন্টারভিউ বোর্ডের সামনে করবেন না। তাতে আপনার সম্বন্ধে ধারণা আরও খারাপ হবে।

(6) অনুমানের ভিত্তিতে কোন‌ও উত্তর না দেওয়াই ভালো। সরাসরি প্রশ্নের সরাসরি উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবেন। না মনে পড়লে বলে দেবেন জানি না। কারণ অনুমানের ভিত্তিতে ভুল উত্তর দেওয়া অতিরিক্ত নেগেটিভ পয়েন্ট যোগ করে।

(7) ইন্টারভিউয়ে আপনার পোশাক-আশাক, আচার-আচরণের দিকেও কড়া নজর রাখা হবে। তাই সঠিক পোশাক পড়ে যাওয়াটা যেমন জরুরি, তেমনই জিজ্ঞেস করে ইন্টারভিউ রুমে প্রবেশ করবেন। অনুমতি নিয়ে ধীর স্থিরভাবে চেয়ারে বসবেন। ইন্টারভিউ চলাকালীন উত্তেজনায় পা নাচানো, চুলে হাত চালানো, দাঁত দিয়ে নখ কাটা এসব ভুলেও করবেন না।

যাই হোক, এই গুরুত্বপূর্ণ টিপসগুলো মাথায় রেখে ইন্টারভিউ দিতে জান। সেই সঙ্গে মনে করে জরুরি এবং প্রয়োজনীয় যাবতীয় ডকুমেন্ট সঙ্গে নিয়ে যাবেন। আপনাদের সকলের প্রতি আমাদের শুভেচ্ছা রইল, নিশ্চয়ই ভালো হবে।

বিঃদ্র: নতুন কোনো চাকরি ও কাজের আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ এবং টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হয়ে যান। নিচে যুক্ত (Join) হওয়ার লিংক দেওয়া রয়েছে ঐ লিংকে ক্লিক করলেই যুক্ত হয়ে যেতে পারবেন। ওখানেই সর্বপ্রথম আপডেট দেওয়া হয়। আর আপনি যদি অলরেডি যুক্ত হয়ে থাকেন এটি প্লিজ Ignore করুন।  

Important Links:  👇👇
কাজকর্ম WhatsApp গ্রুপে জয়েন হোনClick Here
✅ Telegram ChannelJoin Now

🔥 আরো গুরুত্বপূর্ণ আপডেট-Click Here